বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৬:০৪ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনামঃ
এমপি হবার শিক্ষাগত যোগ্যতার গুরুত্ব ও মতামতহিউম্যান এইড এর বিশ্লেষণ ও গবেষণা ভিত্তিক প্রতিবেদন] কালীগঞ্জে পারুলী নদী থেকে মাদ্রাসা ছাত্রের লাশ উদ্ধার বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জমিদারি আজ আর নেই, কিন্তু আছে তার রচিত ১০০ পৃষ্ঠারও কম কালজয়ী গ্রন্থ ‘গীতাঞ্জলি’ বাবুরাইলে সন্ত্রাসী হামলায় যুবক আহত, সন্ত্রাসী নুর হোসেন গ্রেপ্তার বন্দরে কিশোরীর আত্মহত্যা পরিবার সহ প্রেমিক পলাতক সংসদে সংরক্ষিত নারী আসনের জন্য আ.লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন যাঁরা ঢাকা ১৮ কে চাঁদা বাজ মুক্ত করতে সাংবাদিকদের সহযোগিতা চাইলেন – খশরু চৌধুরী আলোকিত সমাজ গড়ার কারিগর “শাহেদা স্মৃতি পাঠাগার” ২০২৩ সালে জরিপে নিহত ৮৫০৫ জন সড়ক দুর্ঘটনায় নিয়ে আর তথ্য দেবে না নিরাপদ সড়ক চাই ( নিসচা )  

বেড়ে যাচ্ছে বিবাহবিচ্ছেদ প্রবণতা দাই শিক্ষকতা

বেড়ে যাচ্ছে বিবাহবিচ্ছেদ প্রবণতা দাই শিক্ষকতা

ডেক্স নিউজ// ঢাকার কল্ঠ

বর্তমানে পেশাগত জীবন ঠিক রাখতে গিয়ে বেড়ে যাচ্ছে ডিভোর্সের প্রবণতা। এমন তথ্য জানা গেল এক গবেষণার ফলাফলে। ডেনমার্কে এই নিয়ে একটি গবেষণা হয়। ১৯৮১ থেকে ২০০২ সাল পর্যন্ত যারা বিয়ে করেছে, তাদের নিয়ে গবেষণাটি করা হয়। গবেষণা অনুযায়ী অফিসে পুরুষ ও মহিলাদের অনুপাত এর একটি অন্যতম বড় কারণ।

অফিসে যদি বিপরীত লিঙ্গের সহকর্মীর সংখ্যা বৃদ্ধি পায়, তাহলেই বাড়িতে শুরু হয় অশান্তি। দিন যত বাড়তে থাকে, পরিস্থিতি খারাপের দিকে এগোতে থাকে। এক্ষেত্রে বেশি সমস্যা ভোগ করতে হয় মেয়েদের। কারণ তাদের পুরুষ সহকর্মীদের সঙ্গে কাজ করতে হয়। অনেক সময় দেখা যায় পুরুষ পার্টনাররা এসব সহ্য করতে পারে না।

ঝগড়া চরমে ওঠে। দেখা যায়, ১০ শতাংশ ক্ষেত্রে পুরুষদের থেকে কর্মরতা মহিলাদের ডিভোর্স বেশি হয়। পুরুষদের ক্ষেত্রে সমস্যা আবার অন্যরকম। যদি কোনও পুরুষের বস হয় কোনও মহিলা, তাহলে তাদের মধ্যে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে অদ্ভুত মানসিকতা কাজ করে।

মহিলাদের তারা খুব একটা সহ্য করতে পারে না। ১৫ শতাংশ ক্ষেত্রে এমন হলে ডিভোর্সের সম্ভাবনা বেড়ে যায়। শিক্ষাগত যোগ্যতাও ডিভোর্সের একটি অন্যতম কারণ। দেখা যায়, কেউ যদি তার সহকর্মীদের থেকে বেশি শিক্ষিত হয়, তার ডিভোর্স হওয়ার সমূহ সম্ভাবনা থাকে।

তবে এটা কেন হয়, তার কোনও সুস্পষ্ট ব্যাখ্যা নেই। এটি পুরুষ ও মহিলা, দু’জনের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য। তবে সবচেয়ে বেশি ডিভোর্স হয় সন্দেহবশত। দেখা যায়, অনেকসময় কাজের খাতিরে অনেককে অফিসে অতিরিক্ত সময় থাকতে হয়, ফোনেও অনেকটা সময় কাটে। এখান থেকেই জন্ম নেয় সন্দেহ। সঙ্গী মনে করে, সে হয়তো অন্য কারও সাথে সম্পর্কে জড়াচ্ছে । কিন্তু তা নয়। শুধুমাত্র কাজের খাতিরেই এসব করতে হয়।ণতা

Please Share This Post in Your Social Media

দৈনিক ঢাকার কন্ঠ
© All rights reserved © 2012 ThemesBazar.Com
Design & Developed BY Hostitbd.Com