রবিবার, ১৯ মে ২০২৪, ০৩:৩২ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনামঃ
লোকসভার প্রার্থী সৌমেন্দু অধিকারীর সমর্থনে, অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তীর রোড শো শ্রীপুরে উপজেলা নির্বাচনী প্রচারণার গাড়ী চাঁপায় শিশুর মৃত্যুর ৩ দিন পর মামলা: আসামী অজ্ঞাত ধোলাই খালে মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের আগুন অবশেষ নিয়ন্ত্রণে জানতাম না এত বড় দায়িত্ব নিতে হবে: শেখ হাসিনা গাজীপুরে শ্রীপুর উপজেলা কেনো বাতিল হলো প্রতিমন্ত্রীর ভাইয়ের প্রার্থিতা লালমনিরহাটে সেপ্টিঠ্যাংকিতে পড়া ছাগল উদ্ধার করতে গিয়ে ১ জন নিহত ও আহত ১ উত্তরায় ‘৩২‘রত্মগর্ভা মা’কে বিশেষ সম্মাননা প্রদান উত্তরায় বিআরটি প্রকল্পের প্রকৌশলীকে পিটিয়ে মেরে ফেললো, প্রধানমন্ত্রী টুঙ্গিপাড়ায় যাচ্ছেন শুক্রবার ভারতরত্ন বাবা সাহেব ডক্টর বি. আর আম্বেদকরের ১৩৩ তম জন্ম দিবস পালিত হলো

গোদাগাড়ীতে আগুনে পুড়ে ৫ টি বাড়ি ছায় নিহত হয়েছে ১ নিঃস্ব হল পরিবার গূলো।

নিউজ দৈনিক ঢাকার কন্ঠ 

মোঃ রবিউল ইসলাম মিনাল: রাজশাহী জেলা প্রতিনিধি।:::…. 

রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে আগুন লেগে ৫টি বাড়ি সম্পূর্ণভাবে পুড়ে ছায় হয়ে গেছে। আর এ ঘটনায় জান্নাতুন ফেরদৌস (১৮) নিহত হয়েছে।

এ বিষয়ে স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, রোববার (৯ এপ্রিল) সন্ধ্যা ৬টার দিকে উপজেলার চর আষাড়িয়াদহ ইউনিয়নের চর বয়ারবাড়ী গ্রামে রান্নার চুলা থেকে আগুনের সূত্রপাত ঘটলে এক এক করে ৫টি বাড়ি পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এ সময় ঘরের লোকজন বের হতে পারলেও ঘরে অবস্থান করায় ১৭ বছরের কিশোরী জান্নাতুন ফেরদৌস আগুনে পুড়ে মারা যায়। গ্রামটি পদ্মা নদীর ওপারে চরে অবস্থান হওয়ায় ফায়ার সার্ভিসের লোকজন যেতে পারেনি। আর আশে পাশে পানির ব্যবস্থা না থাকায় স্থানীয় লোকজন আগুন নেভাতে পারেনি।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মাসুদ রানা উজ্জ¦ল বলেন, প্রথমে স্থানীয় শফিকুলের বাড়িতে আগুন লাগে। এরপর পাশে নাজমুল, আব্দুল জলিল, ইমাম হোসেন ও সাইদুর রহমানের বাড়িতে তা ছড়িয়ে পড়ে। এতে করে ৫টি বাড়ি পুড়ে ছাই হয়ে যায়। বাড়ি-ঘর থেকে পরিবারের সদস্যরা বের হয়ে পড়ে। কিন্তু শফিকুলের মেয়ে জান্নতুন ফেরদৌস ঘরেই অবস্থান করছিল। ফলে আগুনে পুড়ে জান্নাতুল ফেরদৌস মারা যায়।

 

এদিকে খবর পেয়ে গোদাগাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) সবুজ হাসান ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহত ও ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে আর্থিক সাহায্য প্রদান করেন। নিহত জান্নাতুল ফেরদৌসের পরিবারকে ২৫ হাজার টাকা ও ক্ষতিগ্রস্তদের ২ হাজার করে টাকা এবং ২০ কেজি করে চাল, শাড়ি, লুঙ্গি দেওয়া হয়। সোমবার পুড়ে যাওয়া পরিবারগুলোকে অস্থানীয়ভাবে ঢেউটিন দিয়ে ঘর করার নির্দেশ দিয়েছে জেলা প্রশাসক শামীম আহমেদ।

 

আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্যদের সাথে কথা বলে জানা যায় , ২০২১ সালে নদী ভাঙনে বাড়ি-ঘর বিলীন হয়ে গেলে নতুন করে সরকারী জায়গায় কোন রকমে ঘর তুলে বসবাস করে আসছিলেন তারা এমন অবস্থায় কি করবে তারা বুঝে পাচ্ছে না।

 

 

Please Share This Post in Your Social Media

দৈনিক ঢাকার কন্ঠ
© All rights reserved © 2012 ThemesBazar.Com
Design & Developed BY Hostitbd.Com