সোমবার, ২২ Jul ২০২৪, ১১:১১ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনামঃ
পিএস সি দুর্নীতি মুক্ত মঞ্চের ডাকে, বিভিন্ন দাবী নিয়ে পি এস সি অফিস অভিযান ও ডেপুটেশন। যারা রাজাকারের পক্ষে শ্লোগানে নেতৃত্ব দিয়েছে তাদের বিরূদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন : পররাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকা, চট্টগ্রাম, বগুড়া ও রাজশাহীতে বিজিবি মোতায়েন নতুন সাক্ষাৎকারে মানসিক বিচক্ষনতার পরিচয় দিলেন বাইডেন আগামী ১৮ জুলাই সকল বোর্ডের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা স্থগিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয় আগামীকাল পবিত্র আশুরা পবিত্র আশুরা সমগ্র মুসলিম উম্মা’র জন্য এক তাৎপর্যময় ও শোকের দিন : রাষ্ট্রপতি ঢাকায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে দুটি বাসে অগ্নিসংযোগ ৭ শিক্ষার্থী নিহতের দায় সরকার এড়াতে পারে না – লেবার পার্টি

ঠাকুরগাঁও,রাণীশংকৈলে সড়ক দূর্ঘটনায় আহত হয়ে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে প্রভাষক খোঁজ রাখেনি কেউ

নিউজ:দৈনিক ঢাকার কন্ঠ 

মাহাবুব আলম, রাণীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি।।

 

ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল পৌরশহরের

বাসিন্দা কেবি ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক সড়ক দূর্ঘটনায় আহত হয়ে মৃত্যুর সাথে

পাঞ্জা লড়ছে। ঘটনার ১মাস পেরিয়ে গেলেও কেউ খোঁজ রাখেনি পরিবারের। থানায়

অভিযোগ করে কোন সুরাহ পাচ্ছেনা ভূক্তভোগি পরিবার ।

আহত প্রভাষকের স্ত্রী বিলকিস ইসলাম রবিবার (১০ সেপ্টেম্বর) সাংবাদিকদের জানান,

হরিপুর কেবি ডিগ্রি কলেজের হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক নজরুল ইসলাম ৩

অক্টোবর বাড়ি ফেরার পথে কাঁঠালডাঙ্গী বাজার সংলগ্ন হঠাৎ পাড়া নামক স্থানে রাণীশংকৈল উপজেলার রংপুর বেকারীর মালবাহী কার্ভাটভ্যানের সাথে মুখোমুখি সংর্ঘষে গুরুত্ব আহত হয়।

আহত প্রভাষক বর্তমানে ঢাকার আলমানার হাসপাতালের নিউরো সার্জন প্রফেসর শেখ সাদের হোসেনের তত্বাবধানে চিকিৎসা নিচ্ছে। তিনি

আরো জানান, আমার স্বামীর চিকিৎসায় ৯/১০ লক্ষ টাকা ব্যয় করে নিঃস্ব হয়ে গেছি।

এরপরেও আহত প্রভাষক নজরুল ইসলাম সুস্থ জীবনে ফিরবেন কিনা সন্দেহ রয়েছে।

বর্তমানে ব্যয় করার মতো সামথ্য নেই। দূর্ঘটনা প্রসঙ্গে হরিপুর থানায় ৩জনকে অভিযুক্ত করে একটি অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। থানা পুলিশও অভিযোগটি আমলে নেয়নি।

রংপুর বেকারির স্বত্তাধিকারি মোবারক হোসেনও কোন খোঁজ খবর রাখেনি।দূর্ঘটনা প্রসঙ্গে রংপুর বেকারির স্বত্তাধিকারি মোবারক হোসেন বলেন, থানা আমাকে ডেকেছিল আপোষ মিমাংসার জন্য সেখানে আমার ছেলে মফিজুল চিকিৎসা

বাবদ ৩০হাজার টাকা দিতে রাজি হই কিন্তু প্রফেসারের লোকেরা রাজি না হওয়ায়

সমাধান হয়নি।

হরিপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তাজুল ইসলাম মুঠোফোনে বলেন, এব্যপারে তারা একটি অভিযোগ দিয়েছিল, সেটি ছিল অসমাপ্ত । পরে সংশোধন করে দেওয়ার কথা কিন্তু দিয়েছে কিনা তা আমার জানা নেই। তাছাড়া ওই কলেজের প্রিন্সিপাল এটা আপোষ করার কথা।

Please Share This Post in Your Social Media

দৈনিক ঢাকার কন্ঠ
© All rights reserved © 2012 ThemesBazar.Com
Design & Developed BY Hostitbd.Com