মঙ্গলবার, ১৮ Jun ২০২৪, ০৯:৩৯ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনামঃ
ব্রেকিং নিউজ টঙ্গী স্টেশন রোড ফ্লাইওভার এর উপরে বেপরোয়া গতিতে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত তিন কলকাতা আঞ্চলিক মহেশ্বরী সভা ও সম্মাননা প্রদান এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান.. বর্তমান সরকার অবাধ তথ্য প্রবাহে বিশ্বাসী: শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী বেগম শামসুন নাহার এমপি “ঈদুল আজহার ত্যাগের মহিমায় ও সন্তুষ্ট সর্বময় সৃষ্টিকর্তার” দুমকীতে জমিজমার বিরোধে অন্তঃসত্ত্বা,শিক্ষিকাকে মারধরে তিনজন আহত চার দিনের মাথায় আবারও ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, কসবা আ্যক্র প্পালিস মলে তৃতীয় ও চতুর্থ তলে দুমকিতে ঈদ উল আযহা ঘনিয়ে আসায় জমতে,শুরু করেছে পশুর হাট বাড়ছে ক্রেতা সমাগম ঈদে নারীর টানে ঘড় মুখো মানুষের নিরাপদ যাত্রা নিশ্চিত করতে নিরলস কাজ করছে গাইবান্ধা জেলা পুলিশ উত্তরা পশুর হাটে চাঁদাবাজিকালে গ্রেফতার ৪ বেলদা গঙ্গাধর একাডেমিতে, পড়ুয়াদের জন্য পরিশ্রুত ঠান্ডা পানীয় জলের মেশিন বসলো..

অনলাইন ক্যাসিনো খেলে রাতে কোটিপতি দিনের ফকির…!

নিউজ দৈনিক ঢাকার কন্ঠ

মো ইদ্রিস শাকিল স্টাফ রিপোর্টার :-

 

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ অনলাইন প্ল্যাটফর্ম, টেলিভিশন বিশেষ করে খেলার চ্যানেলে ডিজিটাল, অনলাইন বাজি বা জুয়ার বিজ্ঞাপন প্রচার-সম্প্রচার ওয়েবসাইট বন্ধের তদারকি ও নিয়ন্ত্রণকারী কর্তৃপক্ষ বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন বিটিআরসিরকে এই বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ নিতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।, সেইসঙ্গে বিকাশ, নগদ, রকেট, এমক্যাশসহ মোবাইল ব্যাংকিং ব্যবহার করে যাতে জুয়া খেলার অর্থ পরিশোধ করতে না পারে সে বিষয়ে নির্দেশনা জারি করতে বলা হয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংককেও।

হাইকোর্টের নির্দেশ থাকলেও বন্ধ হচ্ছে না অনলাইন ক্যাসিনো বিজ্ঞাপন।যাদের হাতে এন্ড্রয়েড মোবাইল আছে। তারা অনলাইনে ঢুকলে সর্বপ্রথম দেখতে পাই অনলাইন ক্যাসিনোর বিজ্ঞাপন। এই অনলাইন ক্যাসিনোর বিজ্ঞাপনের উপর আস্থা রেখে রাতের কোটিপতি দিনের ফকির হয়ে যাচ্ছে লাখ লাখ মানুষ। অনলাইন ক্যাসিনো এমনভাবে বিজ্ঞাপন দেয় খেলতে মন না চাইলেও খেলার জন্য উৎসাহিত করে মানুষকে। অনলাইন ক্যাসিনো আরো বিজ্ঞাপন দেয় প্রথম অনলাইন ক্যাসিনো লগইন করলে ৩০০/৫০০ টাকা বোনাস নিয়ে হয়ে যান কোটিপতি বা বাড়ি গাড়ির মালিক।এই লোভনীয় অনলাইন ক্যাসিনো বিজ্ঞাপন দেখে
শতকরা ৮০% মানুষ ক্যাসিনো খেলতে বাধ্যহচ্ছে। এমনকি-দিনমজুর-কর্মচারী-পথচারী-ড্রাইভার-সিকিউরিটি ইত্যাদি মানুষ অনলাইন ক্যাসিনো খেলায় আসক্তহয়ে পড়েছে।একজন ড্রাইভার ভুক্তভোগীর সাথে কথা বলে জানতে পারি। তিনি আমাকে বলেন। আমি দিনে আয় রোজগার করি ১০০০/
এক হাজার থেকে ১২০০ বারশত টাকা।প্রতিদিন আমি অনলাইন ক্যাসিনো খেলি।বেশ কিছুদিন অনলাইন থেকে টাকা ও উপার্জন করতে পারছি।এরপর থেকে আমি অনলাইন ক্যাসিনো খেলতে খেলতে আমার গাড়িটাও পর্যন্ত বিক্রি করে দিয়েছি। এখন আমার হাতে দৈনিক আয় রোজগার করার মত আর কিছু নাই।অনলাইন ক্যাসিনো আমাকে ফকির করে দিছে। আরেকজন হোটেল কর্মচারীর সাথে কথা বলে জানতে পারি।তিনি আমাকে বলেন আমার মাসিক বেতন ৪০০০চার হাজার থেকে ৫০০০ হাজার টাকা। অনলাইনে ক্যাসিনো বিজ্ঞাপন দেখে আমি ক্যাসিনো খেলতে শুরু করি। তারপর আমি অনলাইন ক্যাসিনো থেকে কিছুদিন টাকাও উপার্জন করি। তারপর থেকে আমি অনলাইন ক্যাসিনো খেলতে খেলতে আমি দিশেহারা হয়ে গেছি।এখন আমার ৫০০০০/পঞ্চাশ হাজার টাকা থেকে ৬০০০০/ ষাট হাজার টাকা পর্যন্ত করজো আছে।আমি আরও মাঠ পর্যবেক্ষণ করে জানতে পারি। দিনশেষে রাত আসলে দেখা যায় কত মানুষ অনলাইন ক্যাসিনো খেলায় আসক্ত ।সবাই রাতের কোটিপতি দিনের ফকির।ভুক্তভোগীদের কথা অনলাইন ক্যাসিনো খেলা মানে ফকির হয়ে যাওয়া।টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন বিটিআরসিরকে এই বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ নিতে বিশেষভাবে অনুরোধ করছি।

Please Share This Post in Your Social Media

দৈনিক ঢাকার কন্ঠ
© All rights reserved © 2012 ThemesBazar.Com
Design & Developed BY Hostitbd.Com