শনিবার, ২০ Jul ২০২৪, ০৩:৪৭ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনামঃ
পিএস সি দুর্নীতি মুক্ত মঞ্চের ডাকে, বিভিন্ন দাবী নিয়ে পি এস সি অফিস অভিযান ও ডেপুটেশন। যারা রাজাকারের পক্ষে শ্লোগানে নেতৃত্ব দিয়েছে তাদের বিরূদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন : পররাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকা, চট্টগ্রাম, বগুড়া ও রাজশাহীতে বিজিবি মোতায়েন নতুন সাক্ষাৎকারে মানসিক বিচক্ষনতার পরিচয় দিলেন বাইডেন আগামী ১৮ জুলাই সকল বোর্ডের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা স্থগিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয় আগামীকাল পবিত্র আশুরা পবিত্র আশুরা সমগ্র মুসলিম উম্মা’র জন্য এক তাৎপর্যময় ও শোকের দিন : রাষ্ট্রপতি ঢাকায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে দুটি বাসে অগ্নিসংযোগ ৭ শিক্ষার্থী নিহতের দায় সরকার এড়াতে পারে না – লেবার পার্টি

মাধবপুরে প্রতিবন্ধী নারীকে ধর্ষণচেষ্টা, থানায় অভিযোগ

নিউজ দৈনিক ঢাকার কণ্ঠ 

মাধবপুর (হবিগঞ্জ)প্রতিনিধি,

হবিগঞ্জের মাধবপুরে এক মালয়েশিয়া প্রবাসীর বুদ্ধি প্রতিবন্ধী মেয়েকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। রবিবার (১৯ নভেম্বর)রাতে মামলাটি দায়ের করেছেন ভিক্টিমের মা লিপি আক্তার৷
ভিক্টিম আহম্মদপুর গ্রামের আঞ্জব আলীর মেয়ে।আঞ্জব আলী দীর্ঘদিন (১২/১৩ বছর) ধরে মালয়েশিয়ায় প্রবাস জীবন যাপন করছেন।

সূত্রে জানা যায় রবিবার বিকাল ৩ টার দিকে মাধবপুর উপজেলার ধর্মঘর ইউনিয়নের আহম্মদপুর গ্রামের নিজ বাড়ির বসতঘরের বারান্দায় ভিকটিম ওই প্রতিবন্ধী মেয়েটিকে বসিয়ে রেখে তার মা বাড়ির পাশের পুকুরে গোসল করতে যান।এই সুযোগে পার্শ্ববর্তী বৈষ্টবপুর গ্রামের মরতুজ আলীর ছেলে লিয়াকত আলী (৫০) এসে মেয়েটিকে টেনেহিঁচড়ে বসতঘরের একটি বাথরুমে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়।এসময় মেয়ের মা গোসল শেষে ফিরে এসে মেয়েকে বারান্দায় না দেখে ডাকাডাকি করতে থাকেন।একপর্যায়ে বাথরুম থেকে ধস্তাধস্তির শব্দ শুনতে পেয়ে সেখানে ছুটে গেলে লিয়াকত দৌড়ে পালিয়ে যায়।কাশিমনগর পুলিশ ফাঁড়ির এসআই আব্দুল কাদের জানান, ‘ওই মেয়েটি ঠিক মতো ঘুচিয়ে কথা বলতে পারে না।মাঝেমধ্যে একটুআধটু কথা বললেও মনের ভাব প্রকাশ করতে পারে না।
লিয়াকত প্রায় সময়ই আঞ্জব আলীর বাড়িতে আসা যাওয়া করতো।মেয়েটি লিয়াকতকে দাদা ডাকতো।’ তিনি আরো জানান, ‘আঞ্জব আলী দীর্ঘদিন ধরে মালয়েশিয়ায় রয়েছেন। ৪ মাস আগে তার বড় ছেলে রুবেল মিয়া (২২) কে মালয়েশিয়াতে নিয়ে গেছেন।অপর ছেলে রানা মিয়া (১৮) রাজমিস্ত্রীর কাজ করেন।ঘটনার সময় বাড়িতে ছিলেন না।’
ঘটনার পর থেকে লিয়াকত পলাতক।

ভিকটিমের নানা আব্দুল হাশিমের সাথে কথা হয় মাধবপুর থানার ডিউটি অফিসারের রুমে।তিনি জানান, ‘সরল মনে লিয়াকতকে আমরা বিশ্বাস করেছিলাম।সে যে এমন দুঃশ্চরিত্র তা জানা ছিল না।’

মাধবপুর থানার ওসি রকিবুল ইসলাম খাঁন জানান, ‘তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় আইনগত পদক্ষেপ গ্রহন করা হবে।’

Please Share This Post in Your Social Media

দৈনিক ঢাকার কন্ঠ
© All rights reserved © 2012 ThemesBazar.Com
Design & Developed BY Hostitbd.Com