রবিবার, ২১ Jul ২০২৪, ১১:৫৪ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনামঃ
পিএস সি দুর্নীতি মুক্ত মঞ্চের ডাকে, বিভিন্ন দাবী নিয়ে পি এস সি অফিস অভিযান ও ডেপুটেশন। যারা রাজাকারের পক্ষে শ্লোগানে নেতৃত্ব দিয়েছে তাদের বিরূদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন : পররাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকা, চট্টগ্রাম, বগুড়া ও রাজশাহীতে বিজিবি মোতায়েন নতুন সাক্ষাৎকারে মানসিক বিচক্ষনতার পরিচয় দিলেন বাইডেন আগামী ১৮ জুলাই সকল বোর্ডের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা স্থগিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয় আগামীকাল পবিত্র আশুরা পবিত্র আশুরা সমগ্র মুসলিম উম্মা’র জন্য এক তাৎপর্যময় ও শোকের দিন : রাষ্ট্রপতি ঢাকায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে দুটি বাসে অগ্নিসংযোগ ৭ শিক্ষার্থী নিহতের দায় সরকার এড়াতে পারে না – লেবার পার্টি

স্বর্ণপদক দেওয়ার ঘোষণা দিলেন মেয়র আতিক

নিউজ দৈনিক ঢাকার কন্ঠ 

রাজধানীর, এডিস মশা নিয়ন্ত্রণ ও ডেঙ্গু প্রতিরোধে সফল কাউন্সিলরদের স্বর্ণপদক দেবে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)। ডিএনসিসির যেসব ওয়ার্ডে কেবল শূন্য সংখ্যক ডেঙ্গু রোগী থাকবে, তাদেরই এই পদক দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন ডিএনসিসির মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম।*

বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) দুপুরে রাজধানীর গুলশান-২ নগর ভবনের হলরুমে দ্বিতীয় পরিষদের ২৮তম করপোরেশন সভায় এই ঘোষণা দেন তিনি।*

ইতোমধ্যে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে ব্যাপক কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে কাউন্সিলরদের আরও বেশি উৎসাহী করার জন্যই এই ঘোষণা ডিএনসিসি মেয়রের।*

ডিএনসিসির সব ওয়ার্ডে একযোগে সচেতনতা কার্যক্রম পরিচালনার জন্য প্রত্যেক কাউন্সিলরকে প্রতি মাসে ৫০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। কাউন্সিলররা নিজ নিজ এলাকার বিশিষ্ট ব্যক্তিরা, রাজনীতিবিদ, মসজিদের ইমাম, স্কুলের শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও সর্বস্তরের জনগণকে সম্পৃক্ত করে ডেঙ্গু প্রতিরোধে করণীয় বিষয়ে মতবিনিময় সভা ও র‍্যালি আয়োজন করছেন। বাড়ি বাড়ি গিয়ে লিফলেট বিতরণ করছেন। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, মসজিদ, মাদ্রাসা ও অন্যান্য ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে প্রচারণার ব্যবস্থা করছে।*

উল্লেখ্য, জুলাই থেকে ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত ডেঙ্গুর পিক সিজন হিসেবে গণনা করা হয়। উল্লেখিত সময়সীমার মধ্যে জরিপে যেসব ওয়ার্ডে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা শূন্য থাকবে, সেসব ওয়ার্ডের কাউন্সিলরদের দেওয়া হবে এই পুরস্কার। পাশাপাশি পুরস্কৃত করা হবে মশক সুপারভাইজার ও মশক কর্মীদেরও।*

ডিএনসিসির স্বাস্থ্য বিভাগ এই মূল্যায়ন প্রক্রিয়া ঠিক করে পুরস্কারের বিষয়টি বাস্তবায়ন করবে।*

এ বছর ছয় ঘণ্টায় কোরবানির পশুর বর্জ্য পরিষ্কার করার কথা জানিয়ে ডিএনসিসি মেয়র বলেন, ‘গত বছর ঈদে কোরবানির বর্জ্য অপসারণে কাউন্সিলরদের নেতৃত্বে আমরা সফল হয়েছিলাম। পূর্ব ঘোষিত আট ঘণ্টারও কম সময়ে কোরবানির বর্জ্য অপসারণ করেছিলাম। এ বছর আমাদের টার্গেট ছয় ঘণ্টায় কোরবানির বর্জ্য অপসারণ করা। সব কাউন্সিলর, কর্মকর্তা ও পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের সার্বক্ষণিক মাঠে থাকতে হবে। আমি নিজেও মাঠে থাকবো।

কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের ছুটি বাতিলের ঘোষণা দিয়ে মেয়র বলেন, ‘কোরবানির বর্জ্য অপসারণের সঙ্গে জড়িত ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের সব কর্মকর্তা-কর্মচারীর ছুটি বাতিল করা হয়েছে। সুষ্ঠুভাবে কোরবানির বর্জ্য অপসারণের জন্য ডিএনসিসিতে কন্ট্রোল রুম স্থাপন করা হয়েছে। পাশাপাশি ওয়ার্ড ভিত্তিক তদারকি টিম গঠন করে দিয়েছি। নির্ধারিত সময়ে কোরবানির বর্জ্য অপসারণ করতে সবাইকে সচেষ্ট থাকতে হবে।’

জলাবদ্ধতা নিরসনে প্রস্তুতি গ্রহণ করার নির্দেশ দিয়ে মেয়র বলেন, ‘আবহাওয়ার পূর্বাভাস অনুযায়ী ঈদে বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে। ঈদের সময় কোথাও যেন জলাবদ্ধতা সৃষ্টি না হয়, সে জন্য কুইক রেসপন্স টিম প্রস্তুত রাখাসহ প্রকৌশল বিভাগ ও বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সব কর্মকর্তা-কর্মচারীকে যথাযথ ব্যবস্থা নিতে হবে। এখন থেকেই ড্রেন ও ক্যাচপিট পরিষ্কার রাখতে হবে।’

সভায় ডিএনসিসির সচিব মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিকের সঞ্চালনায় অন্যদের সঙ্গে আরও উপস্থিত ছিলেন ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মীর খায়রুল আলম, প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. মঈন উদ্দিন, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ইমরুল কায়েস চৌধুরী, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ ফিদা হাসান, ডিএনসিসির সব বিভাগীয় প্রধান ও ডিএনসিসির কাউন্সিলররা এবং অন্যান্য উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।**

Please Share This Post in Your Social Media

দৈনিক ঢাকার কন্ঠ
© All rights reserved © 2012 ThemesBazar.Com
Design & Developed BY Hostitbd.Com